গঠনতন্ত্র

ধারা -১ ঃ সংগঠনের নামঃ Student Association of kasba in Dhaka.

ধারা -২ ঃ স্লোগান/মূলনীতি: শিক্ষা, ঐক্য, কল্যাণ।

ধারা -৩ ঃ প্রতীকঃ এই সংগঠনের নিজস্ব মনোগ্রাম হলো

ধারা -৪ ঃ লাউদ্দেশ্যঃ ঢাকায় অধ্যয়নরত কসবা উপজেলার ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে শিক্ষা সাহিত্য, সংস্কৃতি চর্চা ও  ক্যারিয়ার সংক্রান্ত সমস্যাবলীর সমাধানে

ধারা -৫ ঃ সংগচেষ্টা করা।ঠনের ধরনঃ একটি স্বাধীন, অরাজনৈতিক ও সহযোগীতামূলক সংগঠন। এই সংগঠনের অধীনে প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজ পর্যায়ে  আরও এক বা একাধিক অঙ্গ সংগঠন পরিচালিত হবে।
ধারা -৬ ঃ কার্যক্রমসমূহঃ

১।    কসবা উপজেলার ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে একতা ও পারস্পরিক সমঝোতা সৃষ্টি করা।

২।    শিক্ষা এবং সমাজ উন্নয়নে একতাবদ্ধ হয়ে কাজ করা।

৩।    ঢাকায় কর্মরত কসবা উপজেলার সকল উর্ধ্বতন কর্মকর্তার সাথে ছাত্র-ছাত্রীদের যোগসূত্র স্থাপন করা।

৪।    আমাদের কসবার সকল বড় ভাই-বোন যারা বিভিন্নক্ষেত্রে কর্মরত রয়েছেন তাদের সাথে সম্পর্ক তৈরি এবং রক্ষা করা।

৫।   সকল সদস্যদের চিকিৎসাক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সহায়তা করা। যেমনঃ রক্তদান করা।

৬।   কসবার ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি তুলে ধরার মাধ্যমে একটি প্রকাশনা ছাপানো।

৭।   ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষা সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্য এবং সহায়তা প্রদান।

৮।   দরিদ্র মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান।

৯।    চাকুরী সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় তথ্যাবলী প্রদান এবং একটি ক্ষেত্র তৈরি করে দেওয়ার চেষ্টা করা।

(ক) কার্যনিবাহী কমিটির কাঠামোঃ

১।           সভাপতি                                                                               ১ (এক) জন।
২।          সিনিয়র সহ-সভাপতি                                                           ১ (এক) জন।
৩।        সহ-সভাপতি                                                                          ৫ (পাঁচ) জন ।
৪।         সাধারণ সম্পাদক                                                                ৩ (তিন) জন।
৫।          যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক                                                        ৩ (তিন) জন।
৬।          সাংগঠনিক সম্পাদক                                                         ৫ (পাঁচ) জন।
৭।         সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক                                                  ৩ (তিন) জন।
৮।         কোষাধ্যক্ষ                                                                           ১ (এক) জন।
৯।         দপ্তর সম্পাদক                                                                    ১ (এক) জন।
১০।        প্রচার সম্পাদক                                                                    ১ (এক) জন।
১১।        তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক                                        ১ (এক) জন।
১২।        উপ-তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক                               ১ (এক) জন।
১৩।        তথ্য বিষয়ক সম্পাদক                                                      ১ (এক) জন।
১৪।       ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক                                                       ১ (এক) জন।
১৫।       সাহিত্য ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক                                  ১ (এক) জন।
১৬।        সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক                                       ১ (এক) জন।
১৭।         ক্রীড়া সম্পাদক                                                                 ১ (এক) জন।
১৮।       ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক                                                         ১ (এক) জন।
১৯।       আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক                                              ১ (এক) জন।
২০।       শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক                                                     ১ (এক) জন।
২১।        আইন বিষয়ক সম্পাদক                                                  ১ (এক) জন।
২২।       স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক                                                    ১ (এক) জন।
২৩।       কার্যকরী সদস্যবৃন্দ।

ধারা -৮ ঃ   নির্বাহী কমিটি নির্বাচনঃ এই সংগঠনের একটি স্বাধীন ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিটি থাকবে। এতে উপদেষ্টামন্ডলীরা এবং সংগঠনের                      বিদায়ী  সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক মহোদয় নির্বাচন কমিশিনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন।

ধারা -৯ ঃ    প্রার্থীর যোগ্যতাঃ প্রার্থী হিসেবে নি¤েœাক্ত যোগ্যতা থাকতে হবে।

                   ১।    ছাত্র-ছাত্রীদের অবশ্যই কসবা উপজেলার অধিবাসী হতে হবে এবং ঢাকায় অধ্যয়নরত থাকতে হবে।
২।    সভাপতির জন্য অবশ্যই সম্মান ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী হতে হবে এবং সভাপতি ২ মেয়াদ পর্যন্ত থাকতে পারবে।
৩।    সাধারণ সম্পাদকের জন্য নূন্যতম ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী হতে হবে।

ধারা -১০ ঃ  নির্বাচন তারিখঃ নির্বাচন কমিশন কর্তৃক নির্বাচনের তারিখ ঘোষনা করা হবে। নির্বাচন কমিশন কর্তৃক পরবর্তী    কার্যনির্বাহী কমিটি নির্বাচন                              করা হবে

ধারা -১১ ঃ    দায়িত্ব হস্তান্তরঃ প্রতি ১ (এক) বছর অন্তর বার্ষিক সভার মাধ্যমে নতুন কমিটির হাতে দায়িত্ব হস্তান্তর করা হবে। এছাড়া কোন ব্যক্তি যদি মনে                         করে তার পক্ষে দায়িত্ব বা পদে অবস্থান বা বহাল থাকা অসম্বব তাহলে জরুরী সভার মাধ্যমে দায়িত্ব হস্তান্তর করতে পারবে।

ধারা -১২ ঃ    গঠনতন্ত্র সংশোধনঃ অত্র সংগঠনের যে কোন পরিবর্তন, পরিবর্ধন, পরিমার্জন, বার্ষিক সভায় গৃহিত হবে। তবে এরূপ পরিবর্তন সাধারণ সভায়                        উপস্থিত অবশ্যই দুই তৃতীয়াংশ সদস্যের সম্মতিক্রমে হতে হবে।

ধারা -১৩ ঃ    সংগঠনের প্রাক্তন ছাত্রদের নিয়ে একটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন গঠিত হবে।

ধারা -১৪ ঃ    সংগঠনের সকল সদস্য দায়িত্ব পালনে গঠনতন্ত্রে উল্লেখিত সকল নিয়মাবলী পালন করতে বাধ্য থাকবে।